কচুয়ারডাক পাঠকফোরাম সেচ্ছাসেবক সদস্য ১১নং গোহাট ইউনিয়নে ২য় ধাপে ১৩তম দিনে নগদ অর্থ বিতরণ করেন-প্রেসক্লাব সহ-সভাপতি মফিজুল ইসলাম বাবুল!

কচুয়ারডাক নিউজ ডেস্কঃ কচুয়ারডাক পাঠকফোরাম সেচ্ছাসেবক সমাজ চিন্তার লেখক কচুয়া প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি”মফিজুল ইসলাম বাবুল”৪ঠা জুন ১১নং গোহাট ইউনিয়নে ২য় ধাপে ১৩তম দিনের মতো সাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে সীমিত আকারে উপজেলার অসহায় বিধবা নারী এবং পুরুষদের মাঝে নগদ অর্থ বিতরণ করেন!

(কচুয়া উপজেলার দোজানা গ্রামের মরহুম মুসলিম হাজীর ছেলে কেন্দ্রীয় সদস্য ও ফ্রান্স জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক প্রবাসী”হাবিব খান ইসমাইল” অর্থদাতা)মাহে রমজানের যাকাত অর্থ ও দানকে মহান আল্লাহপাক সাদকায়ে জাড়িয়া হিসেবে কবুল ও মঞ্জুর করুন!আমিন।

(উল্লেখ্য ১ম ধাপের পর ২য় ধাপে সীমিত আকারে সীমিত সংখ্যক প্রতিটি ইউনিয়ন ও উপজেলা সদরে ক্রমান্বয়ে দাতাদের প্রাপ্ত অর্থ সাপেক্ষে বিতরণ অব্যাহত থাকবে)

কচুয়ারডাক পাঠকফোরাম করোনা ভাইরাস কভিড-১৯ মোকাবিলায় ১কোটি টাকার চ্যারিটি আপীলে আপনার দান ও জাকাত দিয়ে শরিক হউন!শেয়ার করুন

কচুয়ারডাক পাঠকফোরামের উদ্যোগে দুনিয়াব্যাপী মহামারী করোনা ভাইরাস কভিড-১৯ কচুয়া উপজেলার ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পাশে দাঁড়াতে ও জরুরী চিকিৎসা সেবা সরবরাহের লক্ষ্যে অর্থ সংগ্রহ এবং ত্রানতহবিল ঘঠন করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

কচুয়া উপজেলায় প্রায় ৫ লক্ষ্য মানুষের বসবাস, সম্প্রতি উক্ত উপজেলার আশে পাশে এবং জেলা সদর ও মতলব উপজেলায় করোনা ভাইরাস সংক্রমিত হওয়ায় চাঁদপুর জেলাপ্রশাসক বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করেন,উক্ত লক ডাউন দীর্ঘায়ীত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে এবং ইতিমধ্যে কচুয়ায় সংক্রামিত হয়।

মহামারিটি ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে পড়লে উপজেলায় খাদ্য ও চিকিৎসা সেবা সংকটের উদ্ভব হতে পারে ভেবে কচুয়ারডাক পাঠকফোরাম পবিত্র মাহে রমজান মাসেই ক্ষতিগ্রস্ত,গরীব,অসহায়,মধ্যভিত্ত,নিম্ম-মধ্যভিত্ত অক্ষম প্রবাসী পরিবারের মাঝে জরুরী ভিত্তিতে খাদ্য ও চিকিৎসা সেবা সরবরাহের উদ্যোগ গ্রহন করে।

আপনি দেশে কিংবা বিদেশে অবস্থান করেও আমাদের এই জরুরী ত্রান তৎপরতা ও চিকিৎসা সেবায় অর্থ প্রদান এবং সেচ্ছাসেবক হয়ে অংশগ্রহনমূলক কাজে জড়িত হয়ে দুনিয়া ও আখিরাতে নেক আমল ও সোয়াবের অংশীদার হতে পারেন আপনার দান ও শ্রম বিপলে যাবে না, আপনার দান, যাকাত সাদকায়ে জাড়িয়া হিসেবে গণ্য হইবে,আপনার যে কোন প্রকার সহযোগিতা কচুয়ারডাক পাঠক ফোরাম সাদরে গ্রহণ করবে।

তারই ধারাবাহিকতায় কচুয়ারডাক পাঠকফোরাম দেশে বিদেশে ফোরামের সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে কচুয়া উপজেলার জন্য করোনা ভাইরাস কভিড-১৯ জরুরী আপীল ১কোটি টাকার ত্রাণ ও চিকিৎসা সেবার জন্য দেশে-বিদেশে সবার জন্য উম্মুক্ত করে চ্যারিটি আপীল ঘোষণা করেন।

“সকলের তরে সকলে আমরা, প্রত্যেকে আমরা পরের তরে” আমাদের আবার দেখা হবে এই প্রত্যয় ও শ্লোগান কে ধারন করে উপজেলার দুঃস্থ অসহায় মানুষের কথা বিবেচনা করে বিভিন্ন প্যাকেজে ত্রাণ বন্টনে খাদ্য দ্রব্য,হাইজিন, স্বাস্থ্য সেবা প্রদানের লক্ষ্যে প্যাকেজ ঘোষণা করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। প্যাকেজের মধ্যে রয়েছে হাউজিন প্যাক ৫,০০০টাকা, সংক্রমণরোধী পোশাক ও মাস্ক ১০,০০০টাকা, ১টি পরিবারে মাসের খাবারের প্যাক ৩,০০০টাকা, ২টি পরিবারে মাসের খাবারের প্যাক ৬,০০০টাকা, ৩টি পরিবারে মাসের খাবারের প্যাক ৯,০০০টাকা, ৪টি পরিবারে মাসের খাবারের প্যাক ১২,০০০টাকা, ঘরে গৃহ সামগ্রী ১০,০০০টাকা, জরুরী মেডিকেল সাপোর্ট ও এ্যাম্বুলেন্স খরচ ২০,০০০ টাকা, করোনায় দাফন ও সৎকার ১০,০০০ টাকা, জরুরী হাঁসপাতাল সামগ্রী বিতরণ ১,০০০০০ টাকা ব্যয় নির্ধারণ করে কচুয়া উপজেলার ২৪৩ গ্রামে সুষম বন্টন করা হবে বলে দিঢ় প্রত্যয় ব্যাক্ত করেন।

কচুয়া উপজেলার দুঃস্থ, অসহায়, গরিব, মধ্যবিত্ত, নিন্ম-মধ্যবিত্ত এবং অক্ষম প্রবাসী পরিবারের কথা বিবেচনা করে দেশ-বিদেশ থেকে অকাতরে দান করে কচুয়ারডাক পাঠকফোরাম মাহে রমজান করোনা ভাইরাস কভিড-১৯ মোকাবিলায় জরুরী ১কোটী টাকার ত্রাণ, চিকিৎসা চ্যারিটি আপীলে যেকোন পরিমাণ অর্থ দান করে উক্ত তহবিলে শরিক হয়ে দুনিয়া ও আখিরাতে অশেষ নেকী হাসিল করুন। আমিন

বিঃদ্রঃ কচুয়ারডাক সম্পাদকীয় পরিষদ, উপদেষ্টা পরিষদ ও দেশে বিদেশে পাঠক ফোরাম এবং শুভাকাংখীগন উক্ত মহতি কাজে পাশে থেকে সহযোগিতা করবেন বলে ইতিমধ্যেই আশ্বাস প্রদান করেন।

কচুয়ারডাক পাঠকফোরাম মাহে রমজান এবং করোনা কভিড-১৯ মোকাবিলায় আমাদের কাছে সাহায্য পাঠানোর একমাত্র বিকাশ ও রকেট নাম্বার 01719 173719

বিঃদ্রঃ Registration নং ০০০৩৪৫

বিস্তারিত জানতে visit:www.kachuardak.com চোখ রাখুন কচুয়ারডাক.কম! প্রয়োজনে ইমেইলঃkachuardakgmail.com