কচুয়ারডাক পাঠক ফোরাম উপজেলায় প্রতিবারের ন্যায় এবারও অসহায় গরিব ও মেধাবীদের পাশে থাকার প্রত্যায় নিয়ে আসছে মাহে রমজান চ্যারিটি আপীল!

কচুয়ারডাক পাঠক ফোরামডেস্কঃ হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন-সদকা ব্যয় কর এবং গণনা করো না, তবে আল্লাহ তোমাদের রিযিক দেওয়ার ক্ষেত্রেও গণনা করবেন। (বুখারী ও মুসলিম) আপনি পৃথিবীতে যাদের প্রতি দয়া প্রকাশ করেন, তবে বেহেস্তে থেকে তিনি আপনাকে ক্ষমা করবেন। – হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) The Prophet Muhammad Peace be upon him said: Spend in charity and do not keep count for then Allah will also keep count in giving your provision. (Bukhari and Muslim) If you show mercy to those who are on the earth, he who is in the heaven will show mercy to you. – Prophet Muhammad  
কচুয়ারডাক পাঠক ফোরাম উপজেলায় প্রতিবারের ন্যায় এবারও অসহায় গরিব ও মেধাবীদের পাশে থাকার প্রত্যায় নিয়ে আসছে মাহে রমজান চ্যারিটি আপীল ঘোষণা করতে যাচ্ছে!
কচুয়ারডাক পাঠকফোরাম “উপজেলায় ক্ষুধা হবে নিরুদ্দেশ”এই- শ্লোগান কে ধারন করে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচিতে হত দরিদ্রদের মাঝে গত মাহে রামজান থেকে সফলভাবে মানবিক কার্যক্রম চালিয়ে আসছে, তারই ধারাবাহিকতায় উপজেলায় অসহায়,দুস্থ,এতিম,মাজুর,বয়স্ক নারী ও পুরুষদের মাঝে বিভিন্ন সময় দাতাদের অর্থ প্রাপ্তী সাপেক্ষে নগদ অর্থ ও চাউল বিতরণ করা হয়!
 
কচুয়া উপজেলার স্থানীয় ও দেশ-বিদেশ থেকে আপনি চাইলে ১ব্যাগ চাউল ৫০কেজির মুল্য স্থানীয় বাজার দড় কিংবা তারও অধিক সম-পরিমানের মুল্য পাঠকফোরাম তহবিলে দান করে অসহায়দের পাশে দাড়াতে এবং দুনিয়া ও আখিরাতের অশেষ নেকী হাসীল করতঃ অর্থ প্রদান অথবা সেচ্ছাসেবক হয়ে অংশ গ্রহণ করতে পারেন।
 
আপনি দেশে কিংবা বিদেশে অবস্থান করেও আমাদের এই জরুরী ত্রান তৎপরতা ও চিকিৎসা সেবায় অর্থ প্রদান এবং সেচ্ছাসেবক হয়ে অংশগ্রহনমূলক কাজে জড়িত হয়ে দুনিয়া ও আখিরাতে নেক আমল ও সোয়াবের অংশীদার হতে পারেন আপনার দান ও শ্রম বিপলে যাবে না, আপনার দান, যাকাত সাদকায়ে জাড়িয়া হিসেবে গণ্য হইবে,আপনার যে কোন প্রকার সহযোগিতা কচুয়ারডাক পাঠক ফোরাম সাদরে গ্রহণ করবে।
 
“সকলের তরে সকলে আমরা, প্রত্যেকে আমরা পরের তরে” আমাদের আবার দেখা হবে এই প্রত্যয় ও শ্লোগান কে ধারন করে উপজেলার দুঃস্থ অসহায় মানুষের কথা বিবেচনা করে বিভিন্ন প্যাকেজে ত্রাণ বন্টনে খাদ্য দ্রব্য ও সেবা প্রদানের লক্ষ্যে প্যাকেজ ঘোষণা করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে।
নুন্যতম প্যাকেজের মধ্যে রয়েছে ১টি পরিবারে মাসের খাবারের প্যাক ৩,০০০ টাকা, ২টি পরিবারে মাসের খাবারের প্যাক ৬,০০০ টাকা, ৩টি পরিবারে মাসের খাবারের প্যাক ৯,০০০ টাকা, ৪টি পরিবারে মাসের খাবারের প্যাক ১২,০০০ টাকা, ঘরের জন্য গৃহ সামগ্রী ১০,০০০ টাকা নুন্যতম ব্যয় নির্ধারণ করে কচুয়া উপজেলার ২৪৩ গ্রামে সুষম বন্টন করা হবে বলে দৃঢ় প্রত্যয় ব্যাক্ত করেন।
 
কচুয়া উপজেলার দুঃস্থ, অসহায়, গরিব, মধ্যবিত্ত, নিন্ম-মধ্যবিত্ত এবং অক্ষম প্রবাসী পরিবারের কথা বিবেচনা করে দেশ-বিদেশ থেকে অকাতরে দান করে কচুয়ারডাক পাঠকফোরাম মাহে রমজান ও করোনা ভাইরাস কভিড-১৯ মোকাবিলায় জরুরী ত্রাণ, চিকিৎসা চ্যারিটি আপীলে যেকোন পরিমাণ অর্থ দান করে উক্ত তহবিলে শরিক হয়ে দুনিয়া ও আখিরাতে অশেষ নেকী হাসিল করুন। আমিন
 
বিঃদ্রঃ কচুয়ারডাক সম্পাদকীয় পরিষদ, উপদেষ্টা পরিষদ ও দেশে বিদেশে পাঠক ফোরাম এবং শুভাকাংখীগন উক্ত মহতি কাজে পাশে রয়েছেন।
কচুয়ারডাক পাঠকফোরাম মাহে রমজান এবং করোনা কভিড-১৯ মোকাবিলায় আমাদের কাছে সাহায্য পাঠানোর একমাত্র বিকাশ ও রকেট নাম্বার 01787422930 – 01719 173719!
বিঃদ্রঃ Registration নং ০০০৩৪৫
https://www.facebook.com/kachuardak
www.kachuardak.com
https://youtu.be/RF4lr7XNojw