কচুয়ার পাথৈর ইউনিয়ন মানুষের পাশে থেকে সেবা করতে চান ইঞ্জিনিয়ার জুয়েল মিয়াজী

কচুয়া ডাক  ডেস্কঃ  আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে কচুয়া উপজেলা ২নং পাথৈর ইউনিয়ন উৎসবমুখর পরিবেশে সৃষ্টি হয়ছে। নির্বাচনের দিন যত ঘনিয়ে আসছে জনগণের উৎবে আর উৎকণ্ঠা ততই বাড়ছে। কচুয়া উপজেলা পাথৈর ইউপি নির্বাচনে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী তরুন উদিয়মান ছাত্রনেতা,বর্তমান ২নং পাথৈর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মো. জুয়েল মিয়াজী। এছাড়াও একাধিক বিভিন্ন পদমর্যাদার অধিকারী তিনি। তিনি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়নের জন্য চেষ্টা করছেন। নির্বাচিত হলে একটি দূনীর্তি,হিংসাতœক মনোভাব পরিহার করে এ ইউনিয়নকে একটি আকর্শনীয় পর্যটন কেন্দ্র রুপান্তিরিত করে দূনীতিমুক্ত,পরিচ্ছন্ন,আধুনিক,নাগরিক দূর্ভোগ মুক্ত ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তুলতে চান। এলক্ষ্যে তিনি এবার ইউনিয়ন পরিষদ নিবার্চনে প্রার্থী হয়ে বিভিন্ন ইউনিয়নের বিভিন্ন স্তরের মানুষের সাথে কথা বলে মানুষের চাওয়া,পাওয়া এবং জনদূর্ভোগের কথা কথা শুনেছেন। তিনি ইউনিয়ন সমস্যা ও তার সমাধান,নির্বাচনী পরিকল্পনা,চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হলে তার।
২নং পাথৈর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মো.জুয়েল মিয়াজী বলেন, আমি এই ইউনিয়নের সন্তান। আমার পারিবারিক ও সামাজিক ভাবেই সবার কাছে পরিচিত। পরিচিত জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু ও জননেত্রী শেখ হাসিনার আর্দশের সংগ্রমী সৈনিক আ,লীগ পরিবারের সন্তান হিসাবে। আমার বড় জ্যেঠার মো. জরুল ইসলাম তিনি পাথৈর ইউনিয়নের তিনবারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান ছিলেন, চেয়ারম্যান থাকাকালীন এলাকায় বেশ কিছু উন্নয়ন করেছেন, এবং মানুষের সাথে তার একটা মধুর সম্পর্ক গড়ান, জ্যাঠার উন্নয়নমূলক কাজ ধারাবাহিক ভাবে ধরে রাখতে তাই সবাই চাইছে আমি এবার ইউপি নির্বাচন করি। সবার চাওয়া ও দাবীর প্রতি সম্মান দিয়েই আমার এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে এবং আমার এলাকার সার্বিক অবকাঠামোর পরির্বতনের জন্যই প্রার্থী হতে চাই।
ইউনিয়নের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ডে সচেতন নাগরিকদের অংশগ্রহন নিশ্চিত করে ২নং পাথৈর ইউনিয়নে শিক্ষা, সংস্কৃতি ও ক্রীড়া বিস্তারে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ, অবহেলিত গ্রামগুলোতে রাস্তা, ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নতি, সোলার লাইট স্থাপন, পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন কার্যক্রম বৃদ্ধি এবং সকল নাগরিক সেবা শতভাগ নিশ্চিত করতে দৃঢ়ভাবে কাজ করে যাবো।
আমার ইউনিয়নের প্রতিটি অসহায় দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়ানোর পাশাপাশি তাদের সকল দাবির বিষয়ে বিগত দিনে আমি সবসময় ছিলাম, আছি এবং ভবিষ্যতেও থাকবো। আমি ছাত্র জীবন থেকে রাজনীতির সাথে জড়িত থেকে এ এলাকার জনসাধারণের জন্য বিগত দিনেও কাজ করেছি আগামীতেও স্বাবলম্বীমূলক কাজে সহযোগিতা করতে চাই।
২নং পাথৈর ইউনিয়নে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও মাদকমুক্তের পাশাপাশি প্রতিটি ওয়ার্ডে সাধারণ মানুষের মতামত নিয়ে সমস্যা গুলোকে চিহ্নিত করে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বাস্তবায়ন করতে চাই।
তিনি আরো বলেন, গরীব-দুঃখী মানুষের কল্যাণে নিজেকে উজাড় করে দিতে চাই । আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে এলাকাবাসীর সার্বিক সহযোগিতায় এ ইউনিয়নের সকল উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড বাস্তবায়ন করে সবাইকে দেখিয়ে দিতে চাই যে ইচ্ছা থাকলে উপায় হয়। তিনি ইউনিয়নের সকল ভোটারদের কাছে উন্নয়নের স্বার্থে সঠিক সিদ্বান্ত নেওয়ার আহবান জানিয়েছেন।
নির্বাচনে জনগণের ভালোবাসা নিয়ে বিজয় অর্জন করে দীর্ঘদিনের অবহেলিত ও সুবিধা বঞ্চিত ইউনিয়নবাসীর প্রত্যাশা পুরন করতে পারবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
নির্বাচনে বিজয়ী হলে ইউনিয়ন বাসীর জন্য ইঞ্জিনিয়ার জুয়েল মিয়াজী বলেন, আমার কোন পিছুটান নেই। অর্থের প্রতি কোন লোভ নেই আছে সম্মান আর জনগনের সেবা করে ভালবাসা পাবার লোভ। ইউনিয়ন সেবা তৃনমূলের জনসাধারনের চাহিদা আজও প‚রণ হয়নি। আমি এমন একটি ইউনিয়ন পরিষদ গড়তে চাই যেখানে জনগনের অধিকারের প্রতিফলন ঘটবে। জণগনের যে অধিকার আছে সেই অধিকার ও ইউনিয়ন পরিষদের সেবা তাদের ঘরে ঘরে পৌঁছে দিয়ে অবহেলিত মানুষের সেবায় নিজেকে উৎসর্গ করতে চাই। এবং ইউনিয়ন পরিষদকে একটি জনবান্ধব ইউনিয়ন হিসাবে গড়ে তুলতে চাই। আমি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে অংশগ্রহন করছি ইউনিয়ন পরিষদে আমি দলীয় বা প্রভাবশালীদের নয়,অসহায় মানুষের পাশে থেকে তাদের সেবা করতে।