কচুয়ায় পুলিশের উপ-পরিদর্শক করোনায় আক্রান্ত

 কচুয়ার ডাক

 কচুয়ায় ক্রমশ বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। প্রতিদিনেই উপজেলার বিভিন্ন প্রান্তে করোনা উপসর্গের রোগী দেখা যাচ্ছে। ঔষুধের ফার্মেসী গুলোতে জ্বর উপসর্গ রোগীর ঔষুধ বিক্রি হচ্ছে দেধারচ্ছে। আসন্ন ঈদুল ফিতরকে কেন্দ্র করে রাজধানী ঢাকা হতে লোকজন অহরহ গ্রামের বাড়ি আসছে। গৌরিপুর-কচুয়া-হাজীগঞ্জ সড়কে ব্যক্তিগত গাড়ির সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। পুলিশ প্রশাসন যখন মানুষকে ঘরমুখো রাখতে দিনরাত কাজ করে যাচ্ছে। ঠিক সেই সময়ে কচুয়া থানার পুলিশের উপ-পরিদর্শক মোস্তফা কামাল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। শনিবার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: সালাহ উদ্দিন মাহমুদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, কচুয়া থানার পুলিশের এসআই মোস্তফা কামাল সহ একাদিক পুলিশ সদস্যের নমুনা সংগ্রহ করে গত সোমবার(১৮ মে) পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে আজ শনিবার মোস্তফা কামালের নমুনা পরীক্ষার রির্পোট পজিটিভ এসেছে।

কচুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ওয়ালী উল্লাহ(অলি) জানান, এসআই মোস্তফা কামালের করোনার উপসর্গ না থাকলেও অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তাদের সাথে গত সোমবার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তার নমুনা দেওয়া হয়। আজ শনিবার তার নমুনা পজিটিভ এসেছে। করোনায় আক্রান্ত এসআই মোস্তফা কামালকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তিনি কচুয়াবাসীকে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে চলাফেরা করার জন্য আহবান জানান। একই সাথে দেশের এই দুর্যোগ মুহুর্তে পুলিশ বাহিনী সহ যে সকল ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তাদের সুস্থতার জন্য দোয়া কামনা করেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সুত্র মতে, এ পর্যন্ত উপজেলায় করোনা সন্দেহে ১০৩ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। তার মধ্যে ৮২ জনের রিপোর্ট এসেছে। ৫জন পজিটিভ, ৭৭ জন নেগেটিভ, ২ জনের মৃত্যু। বাকি ২১ জনের রিপোর্ট আসার অপেক্ষামান।