কচুয়ায় মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সাইদুর রহমান আর নেই

সুজন পোদ্দারঃ কচুয়া উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ সাইদুর রহমান(৫২) বৃহস্পতিবার বিকেলে হৃদক্রিয়া বন্ধ হয়ে কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ইন্তেকাল করেন (ইন্না……রাজিউন)।
মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ১ ছেলে ও ১ মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে যান। তার গ্রামের বাড়ি নরসিংদি জেলায়। ঢাকায় তার স্ত্রী ও সন্তানরা বসবাস করে।
কচুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দীপায়ন দাস শুভ জানান, সাইদুর রহমান উপজেলা সরকারি ব্যাচেলর কোয়ার্টারে থাকতেন। তার পাশের রুমে থাকতেন উপজেলা যুব উন্নয়ন মাহবুব আলম। তিনি হঠাৎ বুকে ব্যথা অনুভব করলে তার পাশের রুমে থাকা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা সহ অন্যান্য সহকর্মীরা তাকে দ্রুত কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। হাসপাতালে নেয়ার পর কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষনা করেন। তার মৃতদেহ রাতেই ঢাকার ক্যান্টের্মেন্ট এলাকার বাসায় পাঠানো হয়েছে।


তাঁর মৃত্যুতে অফিসার পাড়ায়, শিক্ষক মহলে ও সুধী সমাজে শোকের ছায়া নেমে আসে। তিনি ছিলেন একজন সদালাপি ও মিষ্টি ভাষি কর্মকর্তা।
তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়েছেন- সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও স্থানীয় সাংসদ ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় তথ্য ও গবেশনা বিষয়ক সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহজাহান শিশির, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দীপায়ন দাস শুভ, কচুয়া পৌর মেয়র নাজমুল আলম স্বপন, ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুব আলম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যাল সুলতানা খানম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আইয়ুব আলী পাটওয়ারী ও সাধারণ সম্পাদক সোহরাব হোসেন চৌধুরী সোহাগ, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আক্তার হোসেন সোহেল ভূঁইয়া, কচুয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি রাকিবুল হাসান, সাবেক সভাপতি প্রিয়তুষ পোদ্দার, উপজেলা স্কুল, কলেজ, মাদরাসার শিক্ষকদের প্রধান সমন্বয়ক মিজানুর রহমান।
স্কুল, কলেজ, মাদরাসার শিক্ষকদের প্রধান সমন্বয়ককারী মিজানুর রহমান জানান- আমরা একজন সুদক্ষ কর্মকর্তা হারিয়েছি। তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করছি এবং তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি। আগামীকাল বাদ জুমআ স্ব স্ব অবস্থান থেকে তার রুহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া মোনাজাত করা হবে।

কচুয়ারডাক পাঠক ফোরাম মাহে রমজান ও করোনা কভিড-১৯ জরুরী ১ কোটি টাকা ত্রান ও চিকিৎসা চ্যারিটি আপিলে দেশ-বিদেশ থেকে ডেবিট/ক্রেডিট কার্ড দিয়ে খুব সহজেই ঘরে বসে দান করতে আন্তর্জাতিক পেমেন্ট গেটওয়ে লিংকে ক্লিক করুন- PayPal https://bit.ly/2VrRWff হাইজিন প্যাক ৫,০০০ টাকা, সংক্রমণরোধী পোশাক ও মাস্ক ১০,০০০ টাকা, ১টি খাবার প্যাক ৩,০০০ টাকা ২টি খাবার প্যাক ৬,০০০ টাকা, ৩ টি খাবার প্যাক ৯,০০০ টাকা, গৃহ সামগ্রী ১০,০০০ টাকা, জরুরী মেডিকেল সাপোর্ট ও এম্বুলেন্স খরচ ২০,০০০ টাকা, লাশ দাফন ও সৎকার ১০,০০০টাকা,
জরুরী হাসপাতাল সামগ্রী বিতরণ ১,০০০০০ টাকা।

কচুয়ায় দুস্থ ও গরীব এবং অসহায় মানুষের সাহায্যে এগিয়ে আসুন,কচুয়ার ডাক করোনা ভাইরাস কভিড-১৯ জরুরী ১ কোটি টাকার ত্রান,চিকিৎসা চ্যারিটি আপিল এবং ত্রান তহবিলে শরিক হউন, ধন্যবাদ!

দেশ-বিদেশ থেকে ডেবিট/ক্রেডিট কার্ড দিয়ে খুব সহজেই ঘরে বসে দান করতে পারেন আন্তর্জাতিক পেমেন্ট গেটওয়ে চ্যারিটি পেমেন্ট গেটওয়ে লিংকে ক্লিক করুন- Justgiving https://bit.ly/2VNlzXA

আপনি চাইলে হাতের কাছেই পাচ্ছেন বাংলাদেশ মোবাইল পেমেন্ট ক্যাস সিস্টেমঃ নগদ, বিকাশ ও রকেট, আমাদের একমাত্র বিশস্ত নাম্বার এখনই পাঠিয়ে দিন আপনার দান 01719173719

বিঃদ্রঃ BMGSF রেজিষ্ট্রেশন ও লাইসেন্স নং ০০০৩৪৫