করোনা মোকাবেলায় কঠোর অবস্থানে কচুয়া থানা পুলিশ:  অফিসার ইনচার্জ ওয়ালীউল্লাহ অলির

কচুয়ার ডাক:
করোনা মোকাবেলায় কঠোর অবস্থানে কচুয়া থানা পুলিশ:  অফিসার ইনচার্জ ওয়ালীউল্লাহ অলির

করোনার প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে কচুয়া থানার  থানার অফিসার ইনচার্জ ওয়ালীউল্লাহ অলি ১৮ মে (সোমবার) থেকে ৩১ মে (রবিবার) পর্যন্ত কঠোর অবস্থানে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন।

ইতোমধ্যে থানার সকল অফিসার বৃন্দ ও পুলিশ সদস্যদের নিয়ে জরুরী বৈঠক পূর্বক কঠোর অবস্থানে থাকার বিভিন্ন পদক্ষেপ নিতে শুরু করেছেন তিনি।

ইতোমধ্যে কচুয়ায় একজন করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু বরণ করেছে, তখন তার পরিবার কেউ দাফন করতে এগিয়ে আসেনি, তখন কচুয়ার থানার অফিসার ইনচার্জ নির্দেশে একদল চৌকস পুলিশ কর্মকর্তা তার লাশ দাফন করে, আজ একজন পুলিশ কনস্টেবল করোনায় আক্রান্ত হয়েছে, ইফতারের পর আরেক জন করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু বরণ করে, খবর পেয়ে কচুয়ার থানার ওসির নির্দেশে এস আই মোস্তফা, জাহাঙ্গীরের নেতৃত্বে একদল চৌকস পুলিশ কর্মকর্তা, তার দাফন সম্পন্ন করে।
এই মহৎ কাজের জন্য প্রশংসায় ভাসালেন কচুয়া থানার পুলিশ।

হঠাৎ করে কচুয়ায় করোনার প্রদুর্ভাব বেড়ে যাওয়ায় ভাবিয়ে তুলেছে পুলিশ প্রশাসনকে।  ফলে কচুয়ার জনসাধারণের স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতের জন্য এবং জনগণকে সচেতন ও ঘরমূখী করতে  আইন শৃংখলা বাহিনীকে কঠোর হবার নির্দেশ দেন ওসি ওয়ালীউল্লাহ অলি।

নির্দেশ পাওয়া মাত্রই পুলিশ কর্মকর্তারা  নড়ে চড়ে বসেন। শুরু করেন কঠোর অবস্থানের নানা পদক্ষেপ।

কচুয়া বাজার সহ বিভিন্ন সড়কে পুলিশের টহল ও অভিযান জোরদার করা হয়েছে।
অপ্রয়োজনে কেউ ঘরের বাহিরে আসলে তার বিরুদ্ধেও গ্রেফতার পূর্বক ব্যবস্থা নেয়া হবে জানিয়েছেন অফিসার ইনচার্জ ওয়ালীউল্লাহ অলি।