করোনা রোগীদের বাড়িতে উপহার পাঠালেন ইঞ্জিনিয়ার মোঃ জসীম উদ্দিন

কচুয়ার ডাকঃ

কচুয়ায় করোনা আক্রান্ত রোগী ও হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা অসুস্থ ব্যক্তির জন্য ফল সামগ্রী উপহার পাঠিয়েছেন জাপান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মানবতার ডাক সামাজিক সংগঠনের প্রধান উপদেষ্ঠা ইঞ্জিনিয়ার মোঃ জসীম উদ্দিন। পাশাপাশি তাদের সুস্থতার জন্য দোয়া কামনা করা হয়েছে। এতে সার্বিক সহযোগিতা করেছেন মানবতার ডাক সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

জানা যায়, গত ৯ জুন মঙ্গলবার উপজেলার গোহট উত্তর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলহাজ্ব আব্দুল হাই মুন্সী করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। তাঁর মৃত্যুর একদিন পর গত ১০ জুন তাঁর স্ত্রী অবসরপ্রাপ্ত সহকারি প্রাথমিক শিক্ষক মমতাজ বেগম(৬৫) করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। চেয়ারম্যানের মৃত্যুর দিনই উপজেলা প্রশাসন রহিমানগর বাজার বাসাটি লকডাউন করে দেন। ফলে তাঁর পরিবারের কোন সদস্য বাড়ির বাইরে যেতে পারছে না।

অন্যদিকে গত ১৩ জুন শনিবার একই পরিবারের সহকারি প্রাথমিক শিক্ষক জাহাঙ্গীর হোসেন(৪০) ও তার স্ত্রী সহকারি প্রাথমিক শিক্ষক শামিমা ইয়াসমিন(৩৫) এর করোনা পজেটিভ আসে। ফলে উপজেলা প্রশাসন তার বাড়িটি লকডাউন করে দেন। এজন্য তার পরিবারের কোন সদস্য বাড়ির বাইরে যেতে পারছে না।

এছাড়াও গত ৩ জুন উপজেলার বিতারা ইউনিয়নের বুধুন্ডা গ্রামের মোঃ আব্দুল মান্নান(৬০) এর করোনা পজেটিভ আসে। ফলে উপজেলা প্রশাসন তার বাড়িটি লকডাউন করে দেন। এজন্য তার পরিবারের কোন সদস্য বাড়ির বাইরে যেতে পারছে না।

এ অবস্থায় সোমবার সকালে জাপান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিানয়ার মোঃ জসীম উদ্দিনের পক্ষে থেকে মানবতার ডাক সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দের মাধ্যমে উপহার হিসেবে আনারস, মাল্টা, আপেল, আঙ্গুর পাঠানো হয়। উপহারের প্যাকেটের সঙ্গে একটি চিরকুট দেওয়া হয়। এতে লেখা ছিল ‘এই আঁধার কেটে কোন একদিন দুনিয়াতে আলো আসবেই’ ‘সচেতন থাকুন, নিজের প্রতি খেয়াল রাখুন, ঘরে থাকুন, সুস্থ থাকুন’। সুস্থতা কামনায়- ইঞ্জিনিয়ার মোঃ জসীম উদ্দিন।

প্রথমে গোহট উত্তর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল হাই মুন্সীর স্ত্রী মমতাজ বেগমের রহিমানগর বাজারে নিজ বাসায়, একই পরিবারের দুই সহকারি প্রাথমিক শিক্ষক জাহাঙ্গীর হোসেন ও তার স্ত্রী শামিমা ইয়াসমিন, আব্দুল মান্নান সহ আরো ৪ জনের বাড়িতে এই ফল সামগ্রী পৌঁছিয়ে দেওয়া হয়। তাৎক্ষনিক ইঞ্জিনিয়ার মোঃ জসীম উদ্দিন মুঠো ফোনে তাদের সুস্থতার খবর নেন এবং তাদের সুস্থতার জন্য দোয়া করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, কচুয়া প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি আতাউল করিম, প্রচার সম্পাদক ও মানবতার ডাক সামাজিক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক লেখক মোঃ মহসিন হোসাইন, সাংবাদিক রাছেল, ছাত্রলীগ নেতা ইকরাম হোসেন প্রমুখ।

মানবতার ডাক সামাজিক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মহসিন হোসাইন বলেন, ২০১৯ সাল থেকে সংগঠনটি নিজস্ব উদ্যোগে দুর্যোগে সহায়তা, শিক্ষাক্ষেত্রে মেধাবীদের পাশে থাকা, স্বেচ্ছায় রক্তদান করা ও মানুষের চিকিৎসায় সহযোগিতা করে আসছে। আমাদের সংগঠন ভয়কে জয় করে করোনা রোগীদের পাশে দাঁড়াতে পেরেছে এটাই আমাদের স্বার্থকতা। তিনি আরও জানান, করোনা রোগীদের অবজ্ঞার চোখে না দেখে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে তাদের সহযোগিতা ও সহমর্মিতা জানানো উচিৎ।

এ ব্যাপারে জাপান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মোঃ জসীম উদ্দিন বলেন, করোনা রোগীদের মনোবল বাড়াতে প্রচুর পরিমাণে ফল খাওয়ার প্রয়োজন। তাই রোগীদের বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে ফলের ঝুড়ি পাঠানো হয়েছে। বর্তমান সময় করোনা রোগীদের পরিবারকে অবহেলা নয় একটু সহমর্মিতার পরশ ও সার্বিক সহযোগিতা দিয়ে তাদের পাশে থাকার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, আমরা জানি মানসিক শক্তি যেকোনো রোগের বিরুদ্ধে বা বিপদে সবচেয়ে কার্যকরী। আমি নিজে বারবার করোনা রোগীদের খবর নিচ্ছি। কোনো কিছু লাগবে কিনা জানতে চাচ্ছি। আপাতত পাঁচজনের বাসায় সব কিছু আছে তবুও যেকোনো প্রয়োজনে আমার সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলেছি। করোনায় আক্রান্তের জন্য আমার পক্ষ থেকে কিছু ফল পাঠানো হয়েছে।

একইদিন ইঞ্জিনিয়ার মোঃ জসীম উদ্দিনের উদ্যোগে ৩নং বিতারা ইউনিয়নে ছাত্রলীগ নেতা ইকরাম হোসেনের মাধ্যমে রিক্সা, ভ্যান, অটো চালকদের মাঝে মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করা হয়।