বাংলাদেশে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনকালে স্বাধীনতা বিরোধীরা আবারো মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে -মুহম্মদ শফিকুর রহমান এমপি

ফরিদগঞ্জ থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য মুহম্মদ শফিকুর রহমান এমপি বলেছেন, স্বাধীনতার সুর্বণজয়ন্তী উদযাপনকালে স্বাধীনতাবিরোধীরা আবারো মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। মোদীবিরোধী বিক্ষোভের আড়ালে তারা ভারতসহ বহির্বিশ্বে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করতে অপতৎপরতা চালাচ্ছে। তারা এ কাজে মাদ্রাসার কোমলমতি শিশুদের ঢাল হিসেবে ব্যবহার করছে। যা একজন সাধারণ নাগরিক হিসেবে মেনে নেয়া যায় না। আমাদের মনে রাখতে হবে, ১৯৭১ সালে ভারতের অকৃত্রিম সহযোগিতার কারণেই আমরা মাত্র ৯ মাসের যুদ্ধে বিজয় অর্জন করতে সক্ষম হয়েছি। আবার যুদ্ধকালীন সময়ে পাকিস্তানীরা যখন বঙ্গবন্ধুকে মারার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছিল, তখন ভারতের সেই সময়ের প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী পৃথিবীর ৩৭টি দেশ ভ্রমণ করে জনমত সৃষ্টি করেছেন বাংলাদেশের জন্যে। যাতে পুরো বিশ্বের চাপে পাকিস্তান বাধ্য হয় বঙ্গবন্ধুকে বাঁচিয়ে রাখতে। ভারত আমাদের বন্ধু রাষ্ট্র। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে তাই দক্ষিণ এশিয়ার অন্য দেশগুলোর রাষ্ট্র প্রধানদের মতো ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নরেন্দ্র মোদী আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে বাংলাদেশে আসেন। এসব ইতিহাস আমাদের জানতে হবে। এসব নিয়ে নিয়মিত চর্চা করতে হবে। ইতিহাস সম্পর্কে নতুন প্রজন্মকে আরো বেশি জানাতে হবে। এজন্যে যুবলীগকে আরো বেশি অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। ফরিদগঞ্জে যুবলীগকে আরো সুসংগঠিত হয়ে মানুষের কাছে যেয়ে সরকারের সকল কর্মকা- সম্পর্কে অবহিত করতে হবে।

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে শুক্রবার রাতে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ ফরিদগঞ্জ উপজেলা শাখার আয়োজনে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি এ কথা বলেন। উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান শাহীনের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহ্বায়ক আল-আমিন পাটওয়ারীর পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি খাজে আহমেদ মজুমদার, আওয়ামী লীগ নেতা জিএম হাসান তাবাচ্চুম, যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক হেলাল উদ্দিন আহমেদ, আওয়ামী লীগ নেতা পুতুল সরকার, বাহার উদ্দিন, জসিম উদ্দিন, জাকির হোসেন প্রমুখ।