মিলন সমর্থকদের মধ্যে হতাশা,গুলশানে বিক্ষোভ।

গতকাল (০৭ডিসেম্বর ২০১৮) বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ধানের শীষ প্রতীকে ২০৬আসনে প্রার্থী চুরান্ত করে।বাকি ৯৪টি আসন ঐক্যফ্রন্ট ও শরীকদলদের জন্য ছেড়ে দেয়।

চাঁদপুর-১(কচুয়া) আসনে ধানের শীষ প্রতীকে মালেশিয়ান প্রবাসি ও বিএনপি নেতা মোশাররফ হোসেন কে মনোনিত করা হয়।এ খবর ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে এ আসন থেকে ধানের শীষ প্রত্যাশি সাবেক এমপি ও সাবেক শিক্ষাপ্রতিমন্ত্রী ড.আ ন ম এহসানুল হক মিলনের সমর্থকদের মধ্যে হতাশা ছড়িয়ে পড়ে।তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায় তারা।বিভিন্ন নেতাকর্মীরা হতাশায় রাজনীতিকে বিদায় জানাতে সিদ্ধান্ত নেয়।তাদের দাবি এই আসনে ধানের শীষ প্রতীকে যোগ্য প্রার্থী ড.মিলন। তার বিকল্প কেউ নেই।সাবেক এই এমপি দেশের শিক্ষাক্ষেত্রের ভূমিকাসহ কচুয়ার উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রাখে।

বিকাল থেকেই দলীয় গুলশান কার্যালয়ে বিক্ষোভ করতে দেখা যায় মিলন সমর্থিতদের মধ্যে।সর্বশেষ রাত ১০টায় ও তাদের “মিলন ভাই” বলে স্লোগান দিতে দেখা যায়।তাদের দাবি মোশাররফ হোসেন যার কচুয়াতে ১০% ও জনপ্রিয়তা নেই।তাকে কোন যোগ্যতা দেখে নমিনেশন দেওয়া হলো তা তারা জানতে চায়। এ নিয়ে মিলনের সহধর্মিণী নাজমুন্নাহার বেবীর প্রতিক্রিয়া এখনো জানা যায় নি।

তাছাড়া কচুয়া উপজেলা বিএনপির বেশিরভাগ নেতাকর্মীরা গভীরভাবে দুঃখপ্রকাশ করে।পরবর্তীতে তাদের করনীয় সম্পর্কে এখনো সিদ্ধান্ত জানা যায় নি।

113 total views, 1 views today