চাঁদপুরের সংরক্ষিত নারী এমপির চমকপ্রদ তালিকাতে কামরুন্নাহার ভূঁইয়ার নাম

 

কচুয়ার ডাক ঃ একাদশ জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত নারী আসন ৪২ (চাঁদপুর) এমপির চমকপ্রদ তালিকাতে যুক্ত হয়েছে কচুয়ার সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কামরুন্নাহার ভূঁইয়ার নাম।

সাবেক এই মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানকে নারী এমপির ভূমিকায় দেখতে চান
কচুয়া বাসী। কচুয়ার জনগণ মনে করেন ব্যক্তিগত ইমেজের পাশাপাশি কামরুন্নাহার ভূঁইয়ার পারিবারিক ব্যাকগ্রাউন্ড বিবেচনায় এইপদের জন্য তিনিই যথার্থ।

বিশেষ করে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কচুয়া আসনে আওয়ামী লীগের বিজয়ী প্রার্থী ড..মহীউদ্দীন উদ্দীন খান আলমগীর এমপির পক্ষে কামরুন্নাহার ভূঁইয়ার ভিন্ন রকম প্রচারনা ছিল চোখে পরার মত।
নির্বাচন পরবর্তী সময়ে স্থানীয় রাজনৈতিক মহল, ভক্ত ও শুভাকাঙ্খীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্নভাবে সংরক্ষিত নারী আসন ৪২ (চাঁদপুরের) এমপি হিসেবে দেখতে চেয়েছেন সাবেক এই মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কামরুন্নাহার ভূঁইয়াকে । উপজেলা জুড়ে চায়ের আড্ডাতেও তাকে নিয়ে রয়েছে ব্যাপক আলোচনা।

জানা গেছে, কামরুন্নাহার ভূঁইয়াকে সবাই ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে চিনে। জনসেবার কারণে প্রশংসাও কুড়িয়েছেন। আর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মহাজোটের পক্ষে কাজ করে সবার দৃষ্টি কেড়েছেন। সে কারণে আলোচনার শীর্ষে রয়েছেন তিনি। তাছাড়া সরকারী দফতর সামলানো অভিজ্ঞতা ও রয়েছে তাঁর ।

এছাড়া তিনি বিভিন্ন সময় জনসেবামূলক কাজ করে এবং কখনো অসহায়দের মাঝে খাবার কিংবা বস্ত্র বিতরণ করে । আবার কখনো কখনো ব্যক্তিগত কার্যক্রমের বাইরেও জনদুর্ভোগের জন্য নিবেদিত প্রাণ হয়ে কাজ করেন। তাছাড়া রাজনীতির চেয়ে জনগণের সেবার নিজেকে বিলিয়ে দেয়া এই মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কর্মকান্ডে আশার আলো দেখছে জনগণ।

এদিকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মহাজোটের জয়ের মধ্য দিয়ে আওয়ামীলীগ ফের ক্ষমতায় গেছে। নির্বাচন শেষে মন্ত্রীপরিষদ গঠনের পর এবার নারী সংরক্ষিত আসনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ‘জনসেবার দিক দিয়ে হিসেব কষলে অন্য সবার চেয়ে এই মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বেশ এগিয়ে আছেন।
তাছাড়া জনপ্রিয়তার শীর্ষে থাকার ফলে তিনি কোন দিক দিয়ে পিছিয়ে নেই। এতে করে সম্ভবনার আশার আলোতে নতুন সূর্য উদিত হওয়ার অপেক্ষায় রয়েছেন তিনি।’

এব্যাপারে কামরুন্নাহার ভূঁইয়া কচুয়ার ডাককে বলেন, জনসেবা পরিবারের কাছ থেকেই শিখে বড় হয়েছি। আমি মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান। তবে নারী সাংসদ হওয়া বা না হওয়া নির্ভর করছে আল্লাহর উপর এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার উপর। সেবা করার সুযোগ আল্লাহ দিয়ে থাকেন, সম্মান দেয়ার মালিকও তিনি।

241 total views, 1 views today