কচুয়ায় অজ্ঞাত রোগে শতাধিক স্কুল শিক্ষার্থী আক্রান্ত ॥ অর্ধশত হাসপাতালে ভর্তি

কচুয়ার ডাক ঃ
কচুয়া উপজেলার নন্দনপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শতাধিক স্কুল শিক্ষার্থী অজ্ঞাত রোগে আক্রান্ত হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে ৫০ জনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। ৭জন প্রাথমিক চিকিৎসা গ্রহণ করে বাড়ি ফিরেছে। এছাড়াও আরো ৪০/৪৫ জন স্থানীয় বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা গ্রহণ করে।
নন্দনপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হারাধন চন্দ্র ভৌমিক জানান, মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক মোঃ আলা উদ্দিনের পঞ্চম শ্রেণিতে পড়–য়া কন্যা ফারিয়া সুলতানা হঠাৎ করে শ্রেণি কক্ষে ঘুরে পড়ে। পরে তার দেখাদেখি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা জ্ঞান হারিয়ে শ্রেণি কক্ষে ঢলে পড়তে থাকে। এ অবস্থা চলে বিকাল সাড়ে ৬টা পর্যন্ত। বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও অভিভাবকরা অজ্ঞাত রোগে আক্রান্ত শিক্ষার্থীদেরকে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ স্থানীয় বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়। এ ঘটনায় আতঙ্কে রয়েছে শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা।
খবর পেয়ে কচুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নীলিমা আফরোজ, সহকারী কমিশনার (ভূমি) রুমন দে ও কচুয়া থানার ওসি (তদন্ত) শাহজাহান কামাল বিকাল সাড়ে ৩ টার দিকে হাসপাতালে গিয়ে আক্রান্ত শিক্ষার্থীদের খোজ খবর নেন এবং দায়িত্বরত ডাক্তার, নার্সদের প্রয়োজনীয় সেবা প্রদানের আহ্বান জানান।
স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ডা. সোহেল রানাসহ অন্যান্য মেডিকেল অফিসাররা জানান, আমাদের ধারনা প্রথম যে আক্রান্ত হয়েছে সে না খেয়ে বিদ্যালয়ে এসেছে। ক্ষুধার কারনে সে ঘুরে পড়তে পারে। তার এ অবস্থা দেখে ভয় আতঙ্কে অন্যরা একের পর আক্রান্ত হতে থাকে। তারা এটিকে মাস পেনিক (গণ আতঙ্ক) রোগ বলে দাবী করছেন। তারা আরো বলেন, আক্রান্তদের নিয়ে ভয় পাওয়ার কিছু নেই, উপযুক্ত চিকিৎসায় তারা দ্রুত আরোগ্য লাভ করবে।

ছবি ০১ ঃ কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অজ্ঞাত রোগে আক্রান্ত শিক্ষার্থীদের একাংশ।

143 total views, 1 views today