তুলসী এবং ইউনানি চিকিৎসা ॥॥ …. ডাঃ আদল ইনসান

 

ইউনানি চিকিৎসা বিজ্ঞানের ইতিহাস অতিপ্রাচীন। যুগযুগ ধরে মানুষ বিভিন্ন রোগ নিরাময় এবং প্রতিরোধে ইউনানি চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করে আসছেন। উদ্ভিদ, খনিজ এবং প্রাণীজ থেকে নির্দিষ্ট পরিমাণে ঔষধি উপাদান সংগ্রহ করে ইউনানি চিকিৎসাবিদগণ যুগযুগ ধরে রোগ নিরাময় এবং প্রতিরোধ করে মানুষের সেবা দিয়ে আসছেন। আজ আমরা তুলসীর পরিচিতি, প্রাপ্তিস্থান, মিযাজ,স্বাদ,গন্ধ, বর্ণ,মাত্রা, প্রতিক্রিয়া, সংশোধন, প্রতিনিধি, বিশেষ ক্রিয়া এবং উপকারিতা সম্পর্কে জানব।

পরিচিতিঃ
) তুলসী একটি ভেষজ উদ্ভিদ। তুলসী যার বাংলা নাম তুলসী, আরবী- উলসী, ফারসী- রায়হান,উর্দু- বালঙ্গ,হিন্দি- কৃষ্ণ তুলসী, সংস্কৃত- সুরসা মান্জরীকা, তুলসী যার অর্থ তুলনা নাই। তুলসী গাছ সুগন্ধ যুক্ত গুল্ম জাতীয় উদ্ভিদ। গাছ দেখতে মরিচ গাছের মত, ২-৩ ফুটের বেশি চওড়া হয় না। কান্ড সরল,কখনো কাঠের মত শক্ত এবং কোমল লোমাবৃত। শাখা প্রশাখা উপরিভাগে সরল এবং বিপরীত বিন্যস্ত। শাখার প্রান্তদেশ ১ থেকে ১.৫ ইঞ্চি এবং অমসৃণ। পাতার গোড়ার দিকে করাতের মত খাঁজ কাটা এবং অগ্রভাগে মোটা এবং ক্রমশ সরু,পুদিনা পাতার মত। তুলসী পাতা চিবালে পানের স্বাদ আসে। ডালের অগ্রভাগে নরম পুষ্পদন্ডে গোলাপি বর্ণের ফুলের ছড়া হয়। বীজ ছোট,চেপ্টা এবং মসৃণ ও ফিকে কালচে বর্ণের। তুলসী বীজকে ইউনানি পরিভাষায় তোখমে রায়হান বলা হয়। শীতের সময় ফুল ও বীজ হয়। বীজ থেকে চারা হয়। তুলসী গাছ, পাতা,শিকড় ও রস ব্যবহার হয়।

তুলসী প্রধানত তিন প্রকারঃ
১. কৃষ্ণ তুলসী
২. রাম তুলসী
৩. বাবুই তুলসী বা দুলাল তুলসী
এছাড়াও ভূতুলসী কর্পূর তুলসী নামেও তুলসী পাওয়া যায়।

বাংলাদেশ সহ উপমহাদেশের প্রায় সর্বত্র তুলসী জন্মে। কাল তুলসীর মিযাজ ২য় শ্রেনীর উষ্ণ ও শুষ্ক মতান্তরে ১ম শ্রেনির উষ্ণ এবং ২য় শ্রেনির শুষ্ক। এটি পান স্বাদযুক্ত হয়ে থাকে এবং তেজস্ক্রিয় ঘ্রানযুক্ত। কাল তুলসী কাচা গাছ ও পাতা সবুজ এবং শুকালে কাল হয়।
মাত্রাঃ তাজা তুলসী পাতা ৩-৪ গ্রাম। শুষ্ক পাতা ০.৫ থেকে ১.৫ গ্রাম।
অধিক মাত্রায় তুলসী সেবনে গুরুপাক ও মাথা ব্যথার সৃষ্টি হয় এবং এর সংশোধন হিসেবে মধু শর্করা ভাজা ব্যবহার করা হয়।
বিশেষ ক্রিয়াঃ তুলসী শীতল প্রকৃতির, সর্দি, কাশি, শ্লেষ্মা জনিত রোগে বিশেষ কার্যকরী।

উপকারিতাঃ
১. তুলসী বীজ বমন ও বায়ু নিঃসারক এবং দেহের যাবতীয় ফুলায় উপকারী।
২. পাকস্থলীর শক্তিবর্ধক, বায়ু নাশক এবং মহিলাদের ডিসপেপসিয়ায় উপকারী।
৩. মস্তিষ্কের শক্তি বর্ধক এবং মাথা ব্যাথা নাশক। ত্বক পরিষ্কারক,কান ব্যথা ও গলা ব্যথায় বিশেষ উপকারী।
৪. তুলসীর পাতার রস গোলমরিচ সহ সেবনে ম্যালেরিয়া এবং শুঠের সঙ্গে সেবনে বাচ্চাদের অন্ত্রের ব্যথায় বিশেষ উপকার পাওয়া যায়।
৫. পাতার রস শরীরে মর্দন করলে মশা ও ছাড়পোকায় কামড়ায় না।
৬. লেবুর রসের সঙ্গে তুলসী ব্যবহার করলে মুখের মেছতা ও কাল দাগ দূর হয়।
৭. তুলসী গৃহে থাকলে মশা,ছাড়পোকা ও কীটপতঙ্গ দূর হয়।
৮. শিকড় শুক্র বর্ধক ও যৌন উত্তেজক।
৯. তুলসী গাছের জোসান্দা সর্দি, স্বরভঙ্গ, বক্ষ প্রদাহ এবং উদরাময় রোগের উপকারী।

 

লেখক পরিচিতিঃ
বি.ইউ.এম.এস ( ডি.ইউ.)
মেডিকেল অফিসার ( শেড ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড)
মেডিকেল অফিসার ( ট্রিম্যান নিউট্রিসিউটিক্যালস লিমিটেড)

92 total views, 1 views today