জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ বিনির্মাণ করবো, এটাই হোক আজকের এই রথযাত্রা উৎসবের প্রত্যয়

———– বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি ত্রান ও সমাজ কল্যান বিষয়ক সম্পাদক- সুজিত রায় নন্দী

সুজন পোদ্দার, কচুয়া ॥
জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির মডেলে রূপ নিয়েছে। জাতি ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে আজকের এই রথ যাত্রায় অংশ গ্রহণ করে কচুয়া আজ উৎসবে রূপান্তরিত হয়েছে। ধর্ম যার যার রাষ্ট্র সবার। এ দেশ যারা স্বাধীন করেছিল তারা সেই দিন মহান মুক্তিযোদ্ধে ধর্ম,বর্ণ, জাতি নির্বিশেষে সবাই ঝাপিয়ে পড়েছিল হানাদারদের হাত থেকে দেশকে শত্রু মুক্ত করার জন্য। সেই দিন পরিচয় ছিলনা কে মুসলিম, কে হিন্দু, কে বিজাতি। সেইদিন মহান মুক্তিযোদ্ধের শ্লোগান ছিল তুমি কে, আমি কে, বাঙ্গালী বাঙ্গালী। তোমার আমার ঠিকানা পদ্মা মেঘনা যমুনা। সেই দিন সবাই বাঙ্গালী হিসেবে দেশকে মুক্ত করার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়েছিল। যেই দিন এ দেশ স্বাধীন হয়েছিল সেই দিন আমরা সাম্প্রদায়িকতাকে চিরতরে কবর দিয়েছি। সে সাম্প্রদায়িক শক্তি যদি আবারো দেশে মাথা চারা দিয়ে উঠতে চায় সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে শক্ত হস্তে তা দমন করবো।
তিনি আরো বলেন, যারা মসজিদ-মন্দির ও শ্মশানের জায়গা দখল করে তারা দুর্বিত্ত, সন্ত্রাসী এবং তারা দেশ ও মানবতার শত্রু। সে যে হোক সকল গণতান্ত্রিক প্রক্রীয়ায় ঐক্যবদ্ধ হয়ে তাদেরকে সমাজ থেকে চিরতরে নির্মূল করবো। আপনাদের দাবীর প্রেক্ষিতে মন্দিরের পাশে একটি ৫তলা বিশিষ্ট্য ভবন নির্মাণের জন্য প্রধান মন্ত্রীর কাছে সুপারিশ করবো। তা এখনকার স্থানীয় এমপি ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীরের মাধ্যমে বাস্তবায়িত করা হবে। সাচারের জগন্নাথ ধামের এই রথ যাত্রার ঐতিহ্য রক্ষা করতে যা করণীয় তা আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে রক্ষ করে যাবো। আমাদের সংগ্রাম হোক অশুভ শক্তির বিরুদ্ধে, সকল সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে। পৃথিবীর সকল ধর্মে আছে মানুষ হলো সৃষ্টির সেরা জীব। সকল ধর্মে মানবতা, শান্তি, ঐক্য, সত্য, ন্যায় ও শাম্যের কথা বলা হয়েছে। আমরা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ বিনির্মাণ করবো। এটাই হোক আজকের এই রথযাত্রা উৎসবের প্রত্যয়। তিনি বৃহস্পতিবার বিকেলে কচুয়া সাচার জগন্নাথ ধাম ও সাংস্কৃতিক সংঘের উদ্যোগে আয়োজিত সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের ১৫২ রথযাত্রা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি ত্রান ও সমাজ কল্যান বিষয়ক সম্পাদক- সুজিত রায় নন্দী উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।


সাচার জগন্নাথ ধাম পূজা ও সাংস্কৃতিক সংঘের আহবায়ক বটু কৃষ্ণ বসুর সভাপতিত্বে ও উপজেলা হিন্দ,ু বৌদ্ধ, খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়তুষ পোদ্দারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) রুমন দে, কচুয়া পৌর মেয়র নাজমুল আলম স্বপন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যার মাহবুব আলম, কচুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ ওয়ালী উল্লাহ, কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের উপকমিটির সহ-সম্পাদক ইমাম হোসেন মজুমদার মেহেদী, আওয়ামীলীগের সহসভাপতি কামরুন্নাহার ভূঁইয়া, সাচার ইউপি চেয়ারম্যান ওসমান গনি মোল্লা, পাথৈর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান জুয়েল, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি প্রানধন দেব, পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ফনী ভূষন মজুমদার (তাপু), পূজা উদযাপন পরিষদের উপদেষ্টা মুক্তিযোদ্ধা সনতোষ চন্দ্র সেন প্রমূখ।
১৫২ তম রথযাত্রা উৎসব উপলক্ষে সাচার জগন্নাথ ধাম ও সাংস্কৃতিক সংঘের উদ্যোগে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বিভিন্ন মঙ্গলিক আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে শুরু হয় । রথযাত্রার উৎসবকে কেন্দ্র করে সাচার এলাকায় বিরাজ করছে ব্যাপক আনন্দ উল্লাস। জগন্নাথ ধাম, রথ ও জগন্নাথ ধাম এলাকাকে বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে। জগন্নাথ ধাম প্রাঙ্গণ থেকে রথটি টেনে আনা হয়েছে ৫০০ গজ দুরে সাচার বাজারে পূর্ব প্রান্তে। সপ্তাহ পর পালন করা হবে ফেরত রথযাত্রার উৎসব। টানা ও ফেরত রথযাত্রায় হাজার-হাজার হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন অংশ নিবে। রথযাত্রার উৎসব উপলক্ষে মাসব্যাপী এ বছরও কুঠিরজাত শিল্প সহ বিভিন্ন পণ্য সামগ্রীর মেলা বসেছে।

121 total views, 1 views today