কচুয়ায় চেয়ারম্যান প্রার্থী হাজী শাহজাহান ব্যানার ছিড়ে ফেলার অভিযোগ

কচুয়ার ডাক ডেস্কঃচাঁদপুরের কচুয়া  উপজেলার ৩নং  বিতারা ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী  হাজী শাহজানের সমর্থিত  নেতাকর্মীদের ব্যানার ছিড়ে ফেলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গভীর রাতে ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় টাঙ্গানো এ ব্যানার ছিড়ে ফেলেছে অজ্ঞাত দূর্বৃত্তরা ।স্থানীয় নেতাকর্মীরা জানান- বিতারা ইউনিয়ন সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী হাজী শাহজাহান  একজন জনপ্রিয় নেতা, তার সমর্থিত নেতাকর্মীরা পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে ঈদ শুভেচ্ছা ব্যানার পোস্টার ছিঁড়ে ফেলার  এটা কিসের রাজনীতি । হাজী শাহজাহান বিগত দিনে মহামারী করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব কারণে মানুষের কর্মসংস্থান বন্ধ হয়ে যাওয়া ঐ মুহূর্তে বিতারা ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে ত্রাণ সামগ্রী ও বিভিন্ন উৎসব আসলে উপহার  সামগ্রী বিতরণ করে থাকেন। সে একজন অত্যন্ত ভদ্র পরিবারের সন্তান তিনি কখনো অন্যায় কে আশ্রয় ও প্রশ্রয় দেননি  এলাকার কিছু অসাধু লোকজন তাকে ক্ষতি করার জন্য এরকম কর্মকান্ড করে আসছেন।

যারা এ ব্যানার-পোস্টার ছিরে ফেলেছেন তারা বিএনপি ও জামাত পন্থী লোকজন, তারা প্রকৃত আওয়ামী লীগ পরিবারের লোকজন না।  কিন্তু  জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, মাননীয় দেশনেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  ও সজীব ওয়াজেদ জয়, স্থানীয় সংসদ সদস্য  চাঁদপুর কচুয়া রূপকার  সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর এমপি  ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক  ড.সেলিম মাহমুদসহ স্থানীয়  বিভিন্ন নেতাকর্মীর ব্যানার ফেস্টুন ছবি সম্বলিত ছিল।।
তারা আরো জানান,হাজী মোঃ শাহজাহান এর জনপ্রিয়তার দেখে  হিংসাত্বক নোংরা রাজনীতিতে মেতে ওঠছে কিছু  লোক।  ব্যানার ফেস্টুন ছিড়ে ফেলার বিষয়টি আমরা তীব্র নিন্দা প্রতিবাদ জানাই, যারা এই ব্যানার ফেস্টুন ছিড়ে  ফেলার সাথে সম্পৃক্ত রয়েছেন তাদেরকে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।
এ ব্যানার-ফেস্টুন ছেড়ে  ফেলায় নিয়ে আওয়ামীলীগের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মী-সর্মথকদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে বলে জানা গেছে।এ ব্যাপারে বিতারা ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী হাজী শাহজাহান বলেন, ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে আমার টাঙ্গানো ব্যানার শত্রুতা মূলক ভাবে কে বা কাহারা ছিড়ে ফেলে দলীয় ভাবমূর্তি নষ্ট করেছে। আমি এলাকায় ত্রান এর কার্যক্রম চালানোর পরপরই তারা এই ব্যানার কেটে ফেলে ও কিছু ব্যানার চুরি করে নিয়ে যায়।